Friday, 29 November 2019

টুংলু থেকে সান্দাকফু - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক


টংলু পর্যন্ত যাত্রাটা ছিল দুর্দান্ত। 

আজকের গতব্য সান্দাকফু। একুশ কিলোমিটার ট্রেক এবং শেষ ২/৩ কিলোমিটার টানা চড়াই। কালি পোখরি পর্যন্ত প্রথম ১৪/১৫ কিমির অভিজ্ঞতা দুর্দান্ত। জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলা। কখন যাত্রাপথে নেপালি গ্রাম। ভারত - নেপালের সীমানা বরাবর পাইনের জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে চলা। পথের ধারে ট্রেকারস হাটে একটু জিরিয়ে নেওয়া। আবার পথচলা। তবে কালিপোখরি থেকে-ই ছবিটা পরিবর্তিত হবে। পাইন - ফারের জঙ্গল এখন অনেক দূরে। এখানে কাঁটাগাছের ঝোপ। প্রায় অবিরাম চড়াই। বেলা গড়িয়ে যখন সন্ধ্যে, তখন আমারা পৌঁছলুম সান্দাকফু।

আমাদের টিম

যাত্রাপথে

মসৃণ রাজপথ

ভোজন বিরতি

পথের ধারে জলাশয়

একটি পাহাড়ি গ্রাম

এমনই পথ চলা

কতবার দেখলুম, তবু বারেবারে নতুন মনে হয়।

সিঙ্গালিলা জাতীয় উদ্যান



ভোরের আলোয় কাঞ্চনজঙ্ঘা

কি উজ্জ্বল!

মেঘের ফাঁকে - মেঘলোক

এত সুন্দর!

সূর্যোদয়ের আগে

সূর্যোদয়
আমাদের পরের দিনের গন্তব্য ফালুট
 
এগুলিও দেখুন

১) মানে ভঞ্জন - প্রাক - প্রস্তুতি
২) মানেভঞ্জন থেকে টুংলুর দিকে - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক
৩) টুংলু থেকে সান্দাকফু - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক
৪) সান্দাকফু থেকে ফালুট - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক
৫) ফালুট থেকে গোর্কে - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক
৬) গোর্কে থেকে ভারেং - সান্দাকফু ফালুট গোর্কে ভারেং ট্রেক


No comments:

Post a comment

Share your love! Share your train of thoughts! I feel great to read your responses!